‘বাংলাদেশের নির্বাচন প্রভাবিত করার চেষ্টা করেছিল বাইরের শক্তি’

দিন বদল বাংলাদেশ ডেস্ক || দিন বদল বাংলাদেশ

প্রকাশিতঃ রাত ০৮:৫৮, শুক্রবার, ১২ জানুয়ারি, ২০২৪, ২৮ পৌষ ১৪৩০
ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

কিছু বিরোধী রাজনৈতিক দল দুঃখজনকভাবে নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ থেকে বিরত ছিল। সে সঙ্গে বাইরে থেকেও নির্বাচনকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করা হয়েছিল।

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার গঠন করায় অভিনন্দন জানিয়েছে রাশিয়া। একই বার্তায় বাইরের শক্তি এ নির্বাচনকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করেছিল বলে দেশটির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে।

শুক্রবার (১২ জানুয়ারি) রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভার বরাতে ঢাকায় রাশিয়া দূতাবাস তার ফেরিভায়েড ফেসবুক পেজে একটি বিবৃতি প্রকাশ করে। এতে এসব বলা হয়।

বিবৃতিতে মারিয়া জাখারোভা বলেন, কিছু বিরোধী রাজনৈতিক দল দুঃখজনকভাবে নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ থেকে বিরত ছিল। সে সঙ্গে বাইরে থেকেও নির্বাচনকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করা হয়েছিল। বিবৃতিতে গত বছরের ২২ নভেম্বর এবং ১৫ ডিসেম্বর এ বিষয়ে রাশিয়া সতর্ক বার্তা দিয়েছিল বলেও উল্লেখ করা হয়।

আরও বলা হয়, নির্বাচন সফলভাবে সম্পন্ন করার জন্য বাংলাদেশের জনগণকে আমরা অভিনন্দন জানাতে চাই। নির্বাচনের ফলের ভিত্তিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের নতুন সরকার গঠিত হয়। শেখ হাসিনা আগেও এই পদে ছিলেন। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এবং রাশিয়ান ফেডারেশন সরকারের চেয়ারম্যান মিখাইল মিশুস্টিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

এর আগে গত ২২ নভেম্বর ও ১৫ ডিসেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে বাংলাদেশে নির্বাচনে হস্তক্ষেপের অভিযোগ আনে রাশিয়া। এ ছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত পিটার হাস সরকারবিরোধী আন্দোলন পরিকল্পনা নিয়ে বৈঠক করেছিলেন বলে অভিযোগও তুলেছিল রাশিয়া। তবে যুক্তরাষ্ট্র তা নাকচ করে।

সে সময় রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা বলেছিলেন, বাংলাদেশে জাতীয় নির্বাচনের পর আরব বসন্তের মতো পরিস্থিতি ঘটাতে পারে যুক্তরাষ্ট্র। ১৫ ডিসেম্বর (শুক্রবার) এক বিবৃতিতে তিনি এ কথা বলেন।

নির্বাচনের আগে দেওয়া ওই বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘বাংলাদেশ সরকারের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞাসহ আরও বিস্তৃত মাত্রায় চাপ প্রয়োগের হাতিয়ার ব্যবহার হতে পারে। এমন আশঙ্কার গুরুতর কারণও রয়েছে। সেক্ষেত্রে প্রধান শিল্পগুলো আক্রমণের শিকার হতে পারে। একই সঙ্গে বেশ কয়েকজন কর্মকর্তাকে অভিযুক্ত করা হবে, যারা প্রমাণ ছাড়াই নাগরিকদের গণতান্ত্রিক ইচ্ছাকে বাধা দেওয়ার অভিযোগে অভিযুক্ত হবেন।’

তবে শেষ পর্যন্ত দেশি-বিদেশি বিভিন্ন সংস্থার আশঙ্কা এড়িয়ে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়। ইতিমধ্যে মন্ত্রিসভা গঠন করা হয়েছে। বিভিন্ন দেশ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানানো হচ্ছে।

দিনবদলবিডি/Rony

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়