পরবর্তী চার বছরের জন্য সরকারকে যে নির্দেশনা দিলো জাতিসংঘ

নিউজ ডেস্ক || দিন বদল বাংলাদেশ

প্রকাশিতঃ সন্ধ্যা ০৭:১৫, শুক্রবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২৪, ১২ মাঘ ১৪৩০
ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

সরকারের নতুন কর্মসূচিতে মানবাধিকারের বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে সংস্কার করতে হবে। কেননা মানবাধিকার বা আইনের শাসনকে শক্তিশালী করতে বাংলাদেশ সরকারকে সমর্থন ও পরামর্শ দিতে আমরা বরাবরের মতোই প্রস্তুত।

‘দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে টানা চতুর্থ মেয়াদে ক্ষমতায় এসেছে বাংলাদেশ সরকার। নতুন সরকারকে অবশ্যই মানবাধিকারে অগ্রাধিকার দিতে হবে। ঝুঁকতে হবে অংশগ্রহণমূলক রাজনীতিতে। এজন্য বড় ধরনের সংস্কার প্রয়োজন।’ ২৪ জানুয়ারি এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব কথা তুলে ধরেন জাতিসংঘের বিশেষজ্ঞরা।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, ‘নির্বাচনে অংশ নেয়নি দেশের প্রধান বিরোধী বিএনপিসহ কিছু রাজনৈতিক দল। একই সঙ্গে ভোটের আগে সংঘাত-সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। আর এসব ঘটনা সুষ্ঠু নির্বাচনকে অনেকটা ক্ষতিগ্রস্ত করেছে। তাই নাগরিকের সামাজিক সুরক্ষায় আগামী চার বছর নতুন সরকারকে অবশ্যই কাজ করতে হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে তারা আরও বলেন, ‘সরকারের নতুন কর্মসূচিতে মানবাধিকারের বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে সংস্কার করতে হবে। গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় রাজনৈতিক অংশগ্রহণমূলক কাজের চর্চা নিশ্চিতে পরিবেশ গড়ে তুলতে হবে। কেননা মানবাধিকার বা আইনের শাসনকে শক্তিশালী করতে বাংলাদেশ সরকারকে সমর্থন ও পরামর্শ দিতে আমরা বরাবরের মতোই প্রস্তুত।’

মৌলিক স্বাধীনতার লঙ্ঘন হলে জবাবদিহিতার আওতায় আনার জন্যও সরকারকে অনুরোধ জানায় জাতিসংঘের বিশেষজ্ঞ দল। তারা বলেন, ‘গণমাধ্যমের স্বাধীনতা-সমালোচনামূলক প্রতিবেদনের বিপরীতে হুমকি ও ফৌজদারি বিচার থেকে সাংবাদিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে আহ্বান জানাই। আমরা চাই গোটা বিশ্ব যেন বলতে পারে- ‘আন্তর্জাতিক আইনি বাধ্যবাধকতা মেনে চলতে’ বাংলাদেশ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

দিনবদলবিডি/Mamun

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়