জুমায় অংশ নিতে ইজতেমা ময়দা‌নে ছুটছেন মুস‌ল্লিরা

নিউজ ডেস্ক || দিন বদল বাংলাদেশ

প্রকাশিতঃ সকাল ১০:১৮, শুক্রবার, ২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১৯ মাঘ ১৪৩০
ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

কয়েকদফা বৃষ্টিতে মুসল্লিদের দুর্ভোগ হলেও কেউ ময়দান ছেড়ে যাননি। বৃষ্টির মধ্যেও মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে বয়ান অব্যাহত থাকে। বাংলা, উর্দু, হিন্দি, আরবি, ইংরেজিসহ বিভিন্ন ভাষায় এসব বয়ান অনুবাদ করে শোনানো হচ্ছে।

বিশ্ব ইজতেমা ময়দানে আজ এক জামাতে দেশের সর্ববৃহৎ জুমার নামাজ আদায় করা হবে। এতে প্রায় ১০ লাখ মুসল্লি শরিক হয়ে জুমার নামাজ আদায় করবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

রাজধানী ঢাকা ও গাজীপুরের বিভিন্ন উপজেলা এবং আশপাশের জেলা থেকে বিপুল সংখ্যক মুসল্লি এ বৃহৎ জুমার নামাজে শরিক হবেন। ইতোমধ্যে অনেকে টঙ্গী ও আশপাশের এলাকায় অত্মীয়-স্বজনের বাসায় অবস্থান নিয়েছেন। অনেকে জায়নামাজ ও পাটি, পলিথিন নিয়ে ময়দানের দিকে রওয়ানা দিয়েছেন।

২ ফেব্রুয়ারি ইজতেমার প্রথম দিন শুক্রবার হওয়ায় ছুটির দিনে বৃহৎ জামাতে অংশ নেওয়ার জন্য সকাল থেকে বিভিন্ন এলাকার মানুষ ইজতেমা ময়দানের দিকে ছুটছেন। বৃহস্পতিবার কয়েকদফা বৃষ্টিতে মুসল্লিদের দুর্ভোগ হলেও কেউ ময়দান ছেড়ে যাননি। বৃষ্টির মধ্যেও মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে বয়ান অব্যাহত থাকে। বাংলা, উর্দু, হিন্দি, আরবি, ইংরেজিসহ বিভিন্ন ভাষায় এসব বয়ান অনুবাদ করে শোনানো হচ্ছে।

ইজতেমা মাঠের মুরব্বি ইঞ্জিনিয়ার আব্দুর নূর জাহান বলেন, তাবলিগ জামাতের উদ্যোগে প্রতিবছর বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয়। ইজতেমা ময়দানে সব কাজ করা হচ্ছে পরামর্শের ভিত্তিতে।

তিনি আরও জানান, আল্লাহর অশেষ রহমতে সভাপতিহীন বিশ্ব ইজতেমা এত বড় আয়োজন প্রতিবছরই অত্যন্ত সুশৃঙ্খলভাবে সম্পন্ন করা হয়। ময়দানে জেলাওয়ারি মুসল্লিদের অবস্থান, রান্নার স্থান, টয়লেট, অজু ও গোসলখানা সবই সুনির্দিষ্ট করা থাকে।

দিনবদলবিডি/Mamun

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়