দেশের গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় সন্ত্রাসী হামলার ঝুঁকি রয়েছে : আইনমন্ত্রী

দিন বদল বাংলাদেশ ডেস্ক || দিন বদল বাংলাদেশ

প্রকাশিতঃ বিকাল ০৪:০৪, শনিবার, ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ২০ মাঘ ১৪৩০
ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

দেশের উন্নয়নমূলক মেগাপ্রকল্প পদ্মাসেতু, বঙ্গবন্ধু টানেল, এলিভেটেট এক্সপ্রেসওয়ে, টেলিভিশন চ্যানেলসহ গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প ও স্থাপনাগুলোতে নাকি সন্ত্রাসী হামলার ঝুঁকি রয়েছে। 

দেশের গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় সন্ত্রাসী হামলার ঝুঁকি রয়েছে বলে জানিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক। জঙ্গি সংগঠনগুলোকে মদদ দিচ্ছে বিএনপি-জামায়াত, এমনটা অভিযোগ করেন তিনি বলেন, ‘যতদিন পর্যন্ত জঙ্গি সংগঠনগুলো আছে, বিএনপি জামায়াত তাদেরকে মদদ দিয়ে যাচ্ছে, ততদিন পর্যন্ত আমাদেরকে সাবধানে থাকতে হবে।’

শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া আখাউড়া উপজেলার ধরখার ইউনিয়নের বনগজ গ্রামে একটি সেতু উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। পরে সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে স্থানীয় ঈদগাহ মাঠে আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন মন্ত্রী।

এ সময় তিনি বলেন, ‘দেশের উন্নয়নমূলক মেগাপ্রকল্প পদ্মাসেতু, বঙ্গবন্ধু টানেল, এলিভেটেট এক্সপ্রেসওয়ে, টেলিভিশন চ্যানেলসহ গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প ও স্থাপনাগুলোতে নাকি সন্ত্রাসী হামলার ঝুঁকি রয়েছে। পত্রিকায় খবর বের হয়েছে।’

আইনমন্ত্রী ক্ষোভ প্রকাশ করে আরো বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াতের কাজ হচ্ছে বাংলাদেশের মানুষ যেন কষ্টে থাকে সেই রকম একটা ব্যবস্থা করা। তারা ২০১৪ সালে নির্বাচনের সময় আগুনসন্ত্রাস করেছে।

২০১৮ সালের নির্বাচনে বিএনপি-জামায়াত নির্বাচনে মনোনয়ন বাণিজ্য করেছে। মানিলন্ডারিংয়ের মাধ্যমে টাকা পাচার করেছে। ২০২৪ সালের নির্বাচনেও তারা সেই রকম একটি ষড়যন্ত্র করেছে। বাংলাদেশের মানুষের কাছে তারা ভোটের জন্য আসে না।

তারা মনে করে বিদেশি মুরুব্বিদের কাছে কান্নাকাটি করার পর তারা পেছনে দরজায়, তলের দিকের দরজা দিয়ে তাদেরকে কেউ ক্ষমতায় বসাতে পারে কিনা সেই অচেষ্টায় লিপ্ত হওয়া।’

বিএনপি-জামায়াতকে উদ্দেশ্য করে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘এখন বাংলাদেশের মানুষ বাংলাদেশের ভাগ্য নিয়ন্ত্রণ করবে। আপনারা যদি সন্ত্রাস করতে চান, বাংলাদেশের অর্জন নষ্ট করতে চান, তাহলে আপনাদেরকে বলে দিতে চাই, আইন তার নিজস্ব গতিতে চলবে। তা মোকাবেলায় কঠোরভাবে আইন বাস্তবায়ন করা হবে।’

এ সময় মন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন আখাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আলী চৌধুরী, আখাউড়া পৌরসভার মেয়র ও আখাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তাকজিল খলিফা কাজল প্রমুখ।

পরে মন্ত্রী উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে মত বিনিময় করেন।

দিনবদলবিডি/Rony

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়