এখন থেকে মাউন্ট ফুজিতে উঠতে হলে দিতে হবে ফি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || দিন বদল বাংলাদেশ

প্রকাশিতঃ বিকাল ০৩:২৬, বুধবার, ৬ মার্চ, ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০
ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

জাপানের সবচেয়ে বড় তিনটি পর্বতের মধ্যে অন্যতম পর্বতশৃঙ্গ মাউন্ট ফুজি। সব সময়ই পর্যটকের চাপ থাকে ফুজিতে।

তবে বর্তমানে পর্যটকদের চাপ সামলাতে পারছে না ফুজি পর্বত। অতিরিক্ত পর্যটকের কারণে নষ্ট হচ্ছে প্রাকৃতিক পরিবেশ। অতিরিক্ত যানবাহনের চাপ ও দূষণে নাকাল এ এলাকা।

আর তাই মাউন্ট ফুজিতে পর্যটকের সংখ্যা কমাতে এবার ফি আরোপ করেছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। এখন থেকে মাউন্ট ফুজিতে আরোহণ করতে হলে প্রত্যেক পর্যটককে ১৩ ডলার করে ফি দিতে হবে। খবর বিবিসি।

ফি আরোপের পাশাপাশি নানারকম বিধিনিষেধও দিয়েছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। একদিনে ৪ হাজারের বেশি পর্যটক উঠতে পারবেন না পর্বতটিতে। এছাড়া দিনের একটি নির্দিষ্ট সময় বন্ধ থাকবে পর্যটক উঠা।

গত বছর, জুলাই থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে তিন মাসে মাউন্ট ফুজিতে ২ লাখ ২০ হাজারেরও বেশি পর্যটক আরোহণ করেছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

স্থানীয় প্রশাসন বলছে, করোনা মহামারি-পরবর্তীকালে পর্যটকদের চাপ বেড়েছে মাউন্ট ফুজিতে। লাখ লাখ পর্যটকদের ফেলে দেওয়া খাবারের প্যাকেট ও পানির বোতলে নষ্ট হচ্ছে প্রাকৃতিক পরিবেশ। যানবাহনের দূষণে নাকাল এলাকা।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, গত বছর শিজুওকা প্রিফেকচার পুলিশ ৬১টি উদ্ধারমূলক ফোন পেয়েছিলেন। কর্মকর্তাদের মতে, বেশিরভাগ পর্যটকই উচ্চতা রোগ বা হাইপোথার্মিয়ায় ভুগছিলেন, আবার অনেকেই পর্বতে আরোহণের জন্য উপযুক্ত ছিলেন না। ।

তখন থেকে কিছু নতুন নিয়ম চালু করা হয় পর্যটকদের ক্ষেত্রে। তারপর ও পর্যটক নিয়ন্ত্রণ করতে পারছিল না স্থানীয় প্রশাসন। আর তাই চলতি বছর থেকে চালু করা হচ্ছে নতুন নিয়ম।

জাপানের রাজধানী টোকিও থেকে মাউন্ট ফুজির দূরত্ব মাত্র ১০০ কিলোমিটার। মূলত এটি একটি ঘুমন্ত আগ্নেয়গিরি। জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতিবিষয়ক সংস্থার (ইউনেসকো) বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় রয়েছে মাউন্ট ফুজির নাম।

দিনবদলবিডি/Rony

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়