কর্মস্থলে অনুপস্থিত: পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক || দিন বদল বাংলাদেশ

প্রকাশিতঃ সন্ধ্যা ০৭:১১, বুধবার, ৬ মার্চ, ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০
ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

আজ বুধবার সকাল ১০টার দিকে জৈন্তাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শনে যান স্বাস্থ্যমন্ত্রী। তখন উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা রেন্টু পুরকায়স্থ কর্মস্থলে উপস্থিত ছিলেন না। এরপর মন্ত্রী তাকে সাময়িক বরখাস্তের নির্দেশ দেন। জৈন্তাপুর থেকে ফিরে সামন্ত লাল সেন বিশ্বনাথ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যান। পরে দুপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। 

কর্মস্থলে না থাকায় সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা রেন্টু পুরকায়স্থকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। বুধবার (৬ মার্চ) সকালে জৈন্তাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শনকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সামন্ত লাল সেন এই নির্দেশ দেন। পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর সিলেট বিভাগের পরিচালক মাজহারুল ইসলাম চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 

জানা গেছে, আজ বুধবার সকাল ১০টার দিকে জৈন্তাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শনে যান স্বাস্থ্যমন্ত্রী। তখন উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা রেন্টু পুরকায়স্থ কর্মস্থলে উপস্থিত ছিলেন না। এরপর মন্ত্রী তাকে সাময়িক বরখাস্তের নির্দেশ দেন। জৈন্তাপুর থেকে ফিরে সামন্ত লাল সেন বিশ্বনাথ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যান। পরে দুপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। 

মন্ত্রী বলেন, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মূল সংকট হচ্ছে জনবল ও অন্য আনুষঙ্গিক ব্যবস্থা। জনবল সংকট বর্তমানে মূল সমস্যা বলে মনে হচ্ছে। জনবল দিয়ে হাসপাতালকে স্বয়ংসম্পূর্ণ করতে পারলে অবশ্যই মানুষ সেবা পাবে। এ লক্ষ্যেই তিনি কাজ করছেন।

 

দুটি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শন প্রসঙ্গে সামন্ত লাল সেন বলেন, “বিশ্বনাথ ও জৈন্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শন করেছি। জৈন্তাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অবস্থা খুব ভালো মনে হয়নি। ওখানে অনেক কিছু করা দরাকার। অনেক জনবলও নেই। হাসপাতালটি অনেক পুরাতন, অনেক ভবনের কাজ করা দরকার। চিকিৎসকদের উপস্থিতি নিয়েও সন্তুষ্ট নই। একটি কড়া নির্দেশ দিয়ে এসেছি। একজন পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে পাওয়া যায়নি। তাকে ‘সাময়িক বরখাস্ত’ করা হয়েছে। বিশ্বনাথ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে ভালো হাসপাতাল মনে হয়েছে।”

এ সময় সামন্ত লাল সেনের সঙ্গে ছিলেন প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী শফিকুর রহমান চৌধুরী, সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী, বিএমএর মহাসচিব ইহতেশামুল হক চৌধুরী, নগর আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক রজতকান্তি গুপ্ত প্রমুখ।

দিনবদলবিডি/Nasim

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়