মেঘনায় ঘুরতে গিয়ে নিখোঁজ একই পরিবারের তিনজন

জেলা সংবাদদাতা || দিন বদল বাংলাদেশ

প্রকাশিতঃ সকাল ১০:৩৮, শনিবার, ২৩ মার্চ, ২০২৪, ৯ চৈত্র ১৪৩০
ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

ঘোরাঘুরির এক পর্যায়ে মেঘনা নদী ভ্রমণের জন্য স্বজনদের সঙ্গে নিয়ে ভ্রমণতরীতে ওঠেন। এটি মাঝনদীতে পৌঁছালে উল্টো দিক থেকে আসা বালুবাহী একটি বাল্কহেড সজরে ধাক্কা দিলে ট্রলারটি নদীতে ডুবে যায়।

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে মেঘনায় ট্রলারডুবিতে একই পরিবারের তিনজন নিখোঁজ হয়েছেন।

এরা হলেন- পৌর শহরের আমলাপাড়া এলাকার ঝন্টু দে’র স্ত্রী রুপা দে (৩০), তার ভাইয়ের মেয়ে আরাধ্য (১২) ও ভগ্নিপতি বেলন দে (৩৮)। ঝন্টু দে’র বাড়ি কিশোরগঞ্জের মানিকখালি এলাকায়।

শুক্রবার (২২ মার্চ) সন্ধ্যা ৬টার দিকে ভৈরব সৈয়দ নজরুল ইসলাম সড়ক সেতু সংলগ্ন মেঘনা নদীতে বালুবাহী বাল্কহেডের ধাক্কায় ট্রলারডুবির ঘটনা ঘটে।

স্বজনদের সূত্রে জানা যায়, বন্ধের দিন থাকায় শুক্রবার বিকেলে পরিবারের সদস্য ও স্বজনদের নিয়ে স্থানীয় আমলাপাড়ার বাসিন্দা ঝন্টু দে ভৈরব সেতু এলাকায় ঘুরতে যান। ঘোরাঘুরির এক পর্যায়ে মেঘনা নদী ভ্রমণের জন্য স্বজনদের সঙ্গে নিয়ে ভ্রমণতরীতে ওঠেন। এটি মাঝনদীতে পৌঁছালে উল্টো দিক থেকে আসা বালুবাহী একটি বাল্কহেড সজরে ধাক্কা দিলে ট্রলারটি নদীতে ডুবে যায়। এ সময় তাদের সঙ্গে থাকা রুপা দে’র কন্যা চৈতি সাঁতারিয়ে তীরে উঠতে পারলেও পরিবারের বাকি সদস্যরা তীরে উঠতে পারেননি।

নিখোঁজ রুপা দে’র স্বামী ঝন্টু দে বলেন, আমাদের বাড়িতে বেড়াতে আসেন আত্মীয় স্বজনরা। তাদেরকে নিয়ে সেতু এলাকায় ঘুরতে যান। আমার স্ত্রী, সন্তান, ভাতিজি, বোন জামাই সবাই মিলে নৌকায় চড়ে মেঘনা নদীতে ভ্রমণের সময় মাঝনদীতে হঠাৎ বালুবাহী একটি বাল্কহেডের ধাক্কায় ডুবে যায়। এ সময় আমার মেয়ে সাতঁরিয়ে তীরে উঠতে পারলেও আমার স্ত্রী, ভাতিজি, বোন জামাই তীরে উঠতে পারেনি। এখনো নিখোঁজ স্বজনদের সন্ধানের অপেক্ষায় সময় পার করছি।

দিনবদলবিডি/Rony

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়