সিরিজ জয়ের মিশন আজ টাইগারদের, নেতৃত্বে মোসাদ্দেক

নিজস্ব প্রতিবেদক || দিন বদল বাংলাদেশ

প্রকাশিতঃ সকাল ০৯:২০, মঙ্গলবার, ২ আগস্ট, ২০২২, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৯
ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

প্রথম ম্যাচে জিম্বাবুয়ের কাছে হারলেও দ্বিতীয়টি জিতে সিরিজে ১-১ সমতা ফিরেছে বাংলাদেশ। জয়ের ধারা অব্যাহত রেখে সিরিজ জয়ের মিশনে আজ আবারও মাঠে নামবে টাইগাররা।

আজ (মঙ্গলবার, ২ আগস্ট) সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি হারারে স্পোর্টস ক্লাবে বাংলাদেশ সময় বিকেল ৫টায় শুরু হবে এবং টি স্পোর্টস চ্যানেলে সরাসরি সম্প্রচারিত হবে।

সিরিজের প্রথম ম্যাচে ১৭ রানে হারে বাংলাদেশ। তবে পরের ম্যাচেই ঘুরে দাঁড়ায় লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। ৭ উইকেটে জিতে সিরিজে সমতা আনে তারা। সিনিয়রদের ছাড়া প্রথম ম্যাচ হারের পর দল নিয়ে নানা প্রশ্ন উঠেছিল। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে জয় প্রমাণ করে যেকোনো অবস্থায় জিম্বাবুয়েকে হারাতে সক্ষম নতুনরা।

প্রথম ম্যাচে জিম্বাবুয়ের দুই ব্যাটার ওয়েসলি মাধভেরে ও সিকান্দার রাজার কাছে হার মানে বাংলাদেশ। দুই ব্যাটারের দৃঢ়তায় ৩ উইকেটে ২০৫ রানের বিশাল সংগ্রহ পায় জিম্বাবুয়ে। বাংলাদেশের বোলিং লাইন-আপের সেরা বোলার মুস্তাফিজুর রহমান, শরিফুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ ও নাসুম আহমেদকে পাত্তাই দেননি মাধভেরে ও রাজা।

সিরিজে ঘুরে দাঁড়াতে সময় নেয়নি বাংলাদেশ। অফস্পিনার মোসাদ্দেক হোসেনের ঘূর্ণিতে দ্বিতীয় ম্যাচে জিম্বাবুয়েকে কুপোকাত করে টাইগাররা। বাংলাদেশের জয়ে বড় ভূমিকা রাখেন মোসাদ্দেক। টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের চতুর্থ বোলার হিসেবে ইনিংসে পাঁচ উইকেট নেন মোসাদ্দেক। তার বোলিং নৈপুণ্যে ৮ উইকেটে ১৩৫ রানের বেশি করতে পারেনি জিম্বাবুয়ে। ১৩৬ রানের টার্গেট স্পর্শ করতে মোটেও বেগ পেতে হয়নি বাংলাদেশকে। লিটন দাসের হাফ সেঞ্চুরিতে ১৫ বল বাকি রেখেই জয়ের স্বাদ পায় টাইগাররা। ৩৩ বলে ৫৬ রানের ইনিংস খেলেন লিটন।

তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে আবারও স্পিন দিয়ে জিম্বাবুয়েকে ঘায়েলের পরিকল্পনা বাংলাদেশের। তবে সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচের আগে বড় ধাক্কা বাংলাদেশ শিবিরে। আঙুলের ইনজুরির কারণে চলমান সিরিজ থেকেই ছিটকে গেছেন নুরুল হাসান সোহান। সোহানের অনুপস্থিতিতে দলের নেতৃত্ব ভার মোসাদ্দেক হোসেনের ওপর। তবে সোহানকে ছাড়াই সিরিজ জিততে যথেষ্ট সক্ষম বাংলাদেশ। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ২০ রানে ৫ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরা হন মোসাদ্দেক। তিনি বলেন, ‘সিরিজ জয়ের জন্য তৃতীয় ম্যাচ জিততে আমরা আশাবাদী।’

মোসাদ্দেক আরো বলেন, ‘এটি আসলে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে আমার দ্বিতীয় পাঁচ উইকেট। কিন্তু আমি কবে প্রথম পাঁচটি পেয়েছি তা মনে করতে পারছি না। তবে দ্বিতীয়টি ম্লান হয়নি। আমি যখন বোলিং করি তখন ভাবি না আমি একজন অকেশনাল বোলার। আমি নিজেকে নিয়মিত বোলার হিসেবে ভাবতে ভালোবাসি। দ্বিতীয় খেলায় যখন অধিনায়ক আমাকে বল দিয়েছিলেন তখন আমি শুধু প্রতিপক্ষের রান আটকানোর চেষ্টা করি। তারা আমার ওপর চড়াও হতে গিয়ে উইকেট দিয়েছে।’

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১৮ ম্যাচ খেলে ১২টিতে জয় ও ৬টিতে হেরেছে বাংলাদেশ। তৃতীয় ম্যাচে বাধ্য হয়েই একাদশে পরিবর্তন আনতে হবে টাইগারদের। কারণ ইনজুরিতে ছিটকে গেছেন সোহান। সোহানের পরিবর্তে একাদশে সুযোগ পেতে পারেন পারভেজ হোসেন ইমন। বাংলাদেশের পক্ষে টি-টোয়েন্টিতে দ্রুততম সেঞ্চুরি রয়েছে ইমনের। আর উইকেটের পেছনে দায়িত্ব সামলাবেন লিটন দাস।

বাংলাদেশ দল

মুনিম শাহরিয়ার, এনামুল হক বিজয়, লিটন দাস, আফিফ হোসেন ধ্রুব, শেখ মাহেদি, নাসুম আহমেদ, তাসকিন আহমেদ, শরিফুল ইসলাম, মুস্তাফিজুর রহমান, হাসান মাহমুদ, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, নাজমুল হোসেন শান্ত, মেহেদি হাসান মিরাজ ও পারভেজ হোসেন ইমন।

দিনবদলবিডি/আরএজে

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়