কোটা সংস্কার আন্দোলন: পথচলতি মানুষের ভোগান্তি চরমে

দিন বদল বাংলাদেশ ডেস্ক || দিন বদল বাংলাদেশ

প্রকাশিতঃ বিকাল ০৫:০৫, বুধবার, ১০ জুলাই, ২০২৪, ২৬ আষাঢ় ১৪৩১
ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

‘কারওয়ান বাজার নামিয়ে দিয়েছে। সামনে আগানোর উপায় নেই। হেঁটে হেঁটে কত দূর যেতে পারব, বুঝতেসি না। ছেলেটা আগে থেকেই অসুস্থ, গরম ও রোদে কাহিল হয়ে গেছে।’

পটুয়াখালী থেকে ঢাকায় বেড়াতে এসেছিলেন মাখন মিয়া, সঙ্গে স্ত্রী ও ছেলে মোজাহিদ। ছয় বছরের মোজাহিদের শ্বেতীরোগ আছে, রোদে তাকাতে কষ্ট হয়। উত্তরা থেকে ভেঙে ভেঙে কারওয়ান বাজার পর্যন্ত এসেছে পরিবারটি। সঙ্গে দুটি ব্যাগ।

বুধবার বেলা আড়াইটায় মাখন মিয়ার সঙ্গে কথা হয় কারওয়ান বাজার এলাকায়। স্ত্রী ও ছেলেকে নিয়ে রিকশায় মহাখালী থেকে এসেছেন। সরকারি চাকরিতে নিয়োগে কোটাব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা সার্ক ফোয়ারা মোড়ে রাস্তা অবরোধ করেছেন। এই পরিবারকে বহনকারী রিকশাটিকে সামনে যেতে দেননি তাঁরা।

মাখন মিয়া বলেন, ‘পোস্তগোলা যাব। মহাখালী থেকে ২০০ টাকায় রিকশা নিয়েছিলাম গুলিস্তান পর্যন্ত। কারওয়ান বাজার নামিয়ে দিয়েছে। সামনে আগানোর উপায় নেই। হেঁটে হেঁটে কত দূর যেতে পারব, বুঝতেসি না। ছেলেটা আগে থেকেই অসুস্থ, গরম ও রোদে কাহিল হয়ে গেছে।’

সরকারি চাকরিতে নিয়োগে ‘অযৌক্তিক ও বৈষম্যমূলক’ কোটা বাতিল এবং সংবিধানে উল্লেখিত অনগ্রসর গোষ্ঠীর জন্য সংরক্ষিত কোটাকে ন্যূনতম মাত্রায় এনে সংসদে আইন পাস করার দাবিতে রাজধানীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক অবরোধ করেছেন শিক্ষার্থীরা।

আজ বেলা সোয়া ১১টার দিকে শিক্ষার্থীদের একটি দল কারওয়ান বাজারের সার্ক ফোয়ারা মোড়ে অবরোধ করে। তখন থেকে এই মোড় দিয়ে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। যানবাহনগুলো যেখানে ছিল, সেখানে সেভাবে আটকা পড়েছে। রিকশাসহ সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে পাশের এফডিসি মোড়েও।

বেলা সোয়া দুইটা থেকে তিনটা পর্যন্ত সার্ক ফোয়ারা মোড়ে অবস্থান করে দেখা যায়, আন্দোলনকারীরা চার দিকের সড়কেই প্রতিবন্ধকতা তৈরি করেছেন। বিভিন্ন কাজে বের হওয়া মানুষ নানাভাবে আন্দোলনকারীদের বুঝিয়ে সামনে এগোনোর চেষ্টা করছেন। তবে রোগীবাহী অ্যাম্বুলেন্স ছাড়া অন্য যানবাহন সামনে এগোতে দেওয়া হচ্ছে না।

দিনবদলবিডি/Rony

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়