পদ্মা-মেঘনা বিভাগ স্থগিতের কারণ

দিনবদলবিডি ডেস্ক || দিন বদল বাংলাদেশ

প্রকাশিতঃ সন্ধ্যা ০৭:৩৮, রবিবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

বৃহত্তর ফরিদপুরের ৫টি জেলা নিয়ে ‘পদ্মা’ এবং কুমিল্লা ও নোয়াখালীর ৩টি করে মোট ৬টি জেলা নিয়ে ‘মেঘনা’ বিভাগ গঠন আপাতত স্থগিত করা হয়েছে। সরকারের ব্যয় সংকোচন নীতির কারণেই এই সিদ্ধান্ত বলে জানা গেছে।

রবিবার (২৭ নভেম্বর) দুপুরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস-সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির (নিকার) বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এদিন বৈঠকে ‘পদ্মা’ এবং ‘মেঘনা’ নামে নতুন ২টি বিভাগ করার বিষয়ে প্রস্তাব উঠলে, তা চলতি বছরের জন্য স্থগিত করা হয়। কারণ, এমনিতেই সারা বিশ্বব্যাপী সংকট চলছে। সংকট কাটিয়ে উঠতে সরকার সবদিক থেকে ব্যয় কমানোর নীতিতে এগোচ্ছে, এমন অবস্থায় নতুন বিভাগ করলে কোটি কোটি টাকা খরচ হবে। সরকারের ২ জন মন্ত্রীর কথায় সেটিই ফুটে উঠেছে।

এ বিষয়ে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, আমরা যেহেতু ব্যয় সংকোচন নীতি গ্রহণ করেছি, তাই এখনই নতুন ২টি বিভাগ হচ্ছে না। নিকার এ প্রস্তাবটি অনুমোদন দেয়নি। সভায় বাকি এজেন্ডাগুলো অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

নিকারের সদস্য ও স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেন, ‘পদ্মা’ ও ‘মেঘনা’ নামে নতুন বিভাগ করার ২টি প্রস্তাব স্থগিত রাখা হয়েছে। এটি এখন অগ্রাধিকারমূলক বিষয় নয়। কারণ, এখন সারা পৃথিবীতে সংকট চলছে। এখন একেকটি বিভাগ করতে গেলে এক হাজার কোটি টাকার বেশি খরচ হবে। তাই এখন এটি স্থগিত রাখা হয়েছে।

এদিকে অপর একটি সূত্র জানিয়েছে, ‘পদ্মা’ ও ‘মেঘনা’ নামে ২টি বিভাগ করা নিয়ে অন্যান্য জেলা, নামকরণসহ অনেক বিষয় বিবেচনায় নিতে হচ্ছে। তাই সব মিলিয়ে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে সরকার আপাতত এ সিদ্ধান্ত থেকে পিছিয়ে এসেছে।

এর আগে, গত ২ জুন নিকার বৈঠক হওয়ার কথা ছিল। ওই বৈঠকের আলোচ্যসূচিতে ছিল ‘পদ্মা’ ও ‘মেঘনা’ বিভাগ গঠনের প্রস্তাব। কিন্তু পরে সেই বৈঠক স্থগিত করা হয়।

উল্লেখ্য, গত বছরের ২১ অক্টোবর ও ৭ ডিসেম্বর ‘মেঘনা’ নদীর নামে কুমিল্লা ও ‘পদ্মা’ নদীর নামে ফরিদপুর বিভাগ হবে বলে ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী। যদিও স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে ‘ফরিদপুর’ ও ‘কুমিল্লা’ নামে বিভাগ গঠনের দাবি রয়েছে।

দিনবদলবিডি/আরএজে

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়