মার্সিডিজ চালিয়ে ক্রিমিয়া সেতু পার হলেন পুতিন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || দিন বদল বাংলাদেশ

প্রকাশিতঃ সন্ধ্যা ০৬:০৬, মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০২২, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

মার্সিডিজ গাড়ি চালিয়ে রাশিয়ার দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে ক্রিমিয়া উপদ্বীপকে সংযুক্তকারী কের্চ সেতু পার হয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। গত অক্টোবরে বিস্ফোরণে সেতুটি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার পর প্রথমবারের মত তিনি এটি পরিদর্শন করেন।

রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের ফুটেজে পুতিনকে মার্সিডিজ গাড়িটির চালকে আসনে দেখা গেছে। এসময় রাশিয়ার উপপ্রধানমন্ত্রী মারাত খুসনুলিন পুতিনের সঙ্গে ছিলেন। খুশনুল্লিনের কাছ থেকে এর মেরামত কাজের খোঁজ-খবর নেন। -খবর রয়টার্সের।

গাড়ি চালিয়ে সেতুটি পার হওয়ার সময় পুতিন বলেন, আমরা ডান দিক দিয়ে গাড়ি চালাচ্ছি। যা বুঝলাম সেতুটির বাম পাশে কাজ হচ্ছে, এটা সম্পূর্ণ হওয়া দরকার। এখনও একটু কাজ বাকি আছে, তবে এটিকে আদর্শ অবস্থায় নিয়ে আসতে হবে।

পুতিন সেতুর ক্ষতিগ্রস্ত অংশ দেখার জন্য কিছুটা পথ হেঁটেছেন, সেখানে এখনও দৃশ্যমানভাবে ঝলসে গেছে বিস্ফোরণেরে দাগ দেখা যাচ্ছিল।

পুতিনের ৭০তম জন্মদিনের পরদিন ৮ অক্টোবর ভোরে সেতুটিতে বোমা হামলা চালানো হয়েছিল। বিস্ফোরণে সেতুটির সড়ক পাশের একটি অংশ ধসে পড়ে, এতে গুরুত্বপূর্ণ কের্চ প্রণালীতে সাময়িকভাবে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এ বিস্ফোরণে পাশের রেল সেতুতে রাশিয়া থেকে ক্রিমিয়ার পথে থাকা একটি ট্রেনের জ্বালানিবাহী সাতটি ট্যাংকার ওয়াগনে আগুন ধরে যায়।

যদিও ইউক্রেন কখনো এর দায় স্বীকার করেনি তবে সেতুতে বিস্ফোরণের জন্যে মস্কো ইউক্রেনকে দায়ী করেছে রাশিয়া। রাশিয়ার ফেডারেল সিকিউরিটি সার্ভিসের অভিযোগ, ইউক্রেনের সামরিক গোয়েন্দারা এই হামলাটি পরিচালনা করেছে।

উল্লেখ্য, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ২০১৪ সালে রাশিয়ার অন্তর্ভুক্ত করার পরে ২০১৮ সালে ১৯ কিলোমিটারের এই সেতুটি উদ্বোধন করেছিলেন। ফেব্রুয়ারীতে ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরুর পর থেকে রুশ বাহিনীর রসদ সরবরাহ প্রধান পথ হিসেবে এই সেতু ব্যবহার হচ্ছে। 
 

দিনবদলবিডি/এমআর

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়