এত মহৎ আসলেই আর কিছু না...

দিনবদলবিডি ডেস্ক || দিনবদলবিডি.কম

প্রকাশিত: দুপুর ০২:৫৭, সোমবার, ১১ জুলাই, ২০২২, ২৮ শ্রাবণ
এত মহৎ আসলেই আর কিছু না...

প্রতীকী ছবি

স্টকার- একজন অনর্থক খোঁজক। বিচরণকারী। সর্বত্র, বায়োলজিক্যাল প্রপার্টিস ও গাটফিলিংস অথবা নিছক কগনেটিভ প্রপারটিস এর উপর বেইস কইরা অনুমানের উপর অনুসরণ।

আই থিকং একটা উপন্যাস পড়ার প্লেজার এর চাইতে এইটা মোর এডভেঞ্চারাস। বহু লিমিটেশন আছে। আছে রিয়েলিটি ভার্সেস মেটাফিজিক্যাল ক্লাসিকাল ডুয়েল।

জাজমেন্টাল এর স্তরটা মেয়ারলি ফিজিক্স আর ক্যামিস্ট্রির টার্মে। আর একটা স্প্রিচুয়্যালি, সাইকোলজি বা রোমান্স এর টার্মে। এইটা সেল্ফ, কালেক্টিভ সেল্ফ মানে- মডেল সেল্ফ (মডার্ন ক্যারেক্টারিস্টিক অব ওয়েস্টার্ন জাজমেন্টাল নেচার অব ইথিক্স) এর দ্বন্দ্ব।

যাই হোক চীন এর মূল্যবোধ কী জিনিস! তা এখনো বুঝি নাই। বাট নিউলিবারাল আর নিউ ইম্পেরিয়ালিজম অলরেডি মাইক্রোলেভেলে ইফেক্টিভ; যেই খানে জাজমেন্টের রাইট একটা ইউনিপোলার সিস্টেমের মধ্যে কমপ্লিকেটেড প্রসেসে নিজেরে রিয়েলিস্টিক করে তুলেছে।

মানে পাবলিক মানে আর নাগরীক না, স্টেক হোলডার। ওহ হো সেল্ফ দ্বিতীয় পর্যায়ে ডিফাইন্ড হইয়া গেল মাত্র ২০০বছরের ব্যবধানে! আসলেই তো কর্পোরেটের কন্সটিটিউশন আর নেচারেই যদি রাষ্ট্র চলে চলে তাইলে হু কেয়ারস কোনটা ওয়েস্টার্ন প্রকৃতি আর কোনটা ইস্টার্ন। সো রাষ্ট্র আর ফাংশনাল না।

তবে এটা এখনো রিয়েলিস্টিক একটা কারণেই। পাব্লিল থিকা এখন যারা কঞ্জিউমার, তাদের সাইজ কইরা তাদের ইউনিট এনার্জিকে এক্সট্রিমলি ক্যাশ করা। সেই ক্ষেত্রে বেনিফিশিয়ারি পর্যন্ত না গিয়া মাইক্রলেভেলেই সাইজ করে ফেলা সব কিছু।

ওকে ওকে। দেন হোয়াই এস এ সেল্ফ আই থিংক এবাউত ম্যানকাইন্ড। দো ইট ইস কোয়াইট জোকারি অর মকারি। এন্ড ইন দিস লিকুইড এরা ইটস নট মেক এনি সেন্স। হুম থিংক এবাউত হিস্টরি।

আসেন দেখা যাক। ম্যান কাইন্ড এর হিস্টরির কতটা আমাদের জানার সুযোগ আছে বা আগেই কতটা ছিল। ক্লান, পরিবার, আর গোষ্ঠি ছাড়া কনসাসলি বলেন আর আনকনসাসলি; বায়োলজিকাল কানেকশন ছাড়া আদতেই মানুষ কেন, একটা পিপড়ারও সেল্ফ কন্সিডার করার মত কোনো কাঠামো কখনই এক্সিস্ট করে না।

গ্লোরিফিকেশন ইস নট ইম্পর্টেন্ট ফর দ্যা আর্টিসট এস হিম অর হারসেল্ফ। ইট ইজ ইম্পর্টেন্ট ফর দোজ হু হ্যাড গেট ইট টু ইউজ ফর দেমসেল্ফ। এন্ড পার্সোন আর এ ইউনিট টু ইউজ ফর দেম, নারীরা যেমন সবচেয়ে বড় ভোক্তা। পুরুষরা হইল তাদের এনার্জি হাব। কারণ সন্তান। এই ভাবে সব আসলে দিন শেষ পশু হিসাবেই যা করার তাই করি আমরা। আর কালচার! এত মহৎ আসলেই আর কিছু না, যতটা জরুরি এক বেলা মাংস...

লেখক- ইমাম হোসেন সুমন

সূত্র: ফেসবুক থেকে

দিনবদলবিডি/আরএজে

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়