ভ্রমণের সময় বমি: কারণ-প্রতিকার

দিনবদলবিডি ডেস্ক || দিনবদলবিডি.কম

প্রকাশিত: দুপুর ০২:৫১, বুধবার, ১৩ জুলাই, ২০২২, ২ ভাদ্র
ভ্রমণের সময় বমি: কারণ-প্রতিকার

ফাইল ফটো

অনেকেই দূরের পথে ভ্রমণের সময় বাসে কিংবা ট্রলারে অথবা গাড়িতে উঠলেই বমি পায়? মাথা ঘোরানোর সঙ্গে সঙ্গে শরীর ঘাম দিয়ে ঠাণ্ডা হয়ে আসে? নিঃশ্বাস নিতে কষ্ট হয় এবং সারাক্ষণই এক ধরণের অস্বস্তিতে ভোগেন?

আপনি তাহলে নিশ্চিতভাবেই ভুগছেন মোশন সিকনেসে। জেনে নিন এরকম কেন হয় এবং এর প্রতিকার।

মোশন সিকনেসের কারণ

এই সমস্যার শুরু মস্তিষ্কে। যখন কেউ গতিশীল কোনো যানবাহনে থাকে, কিন্তু মস্তিষ্ক বিষয়টি বুঝতে পারে না, তখনই সমস্যাটা হয়। এর কারণ চোখ, কান এবং দেহের সমন্বয়হীনতা।

অনেক সময় কেউ যখন গাড়িতে বসে থাকে, তখন কানের ভেতরের অংশ ডান, বাম, উপর, নীচ- এই সবদিক থেকেই আওয়াজ সনাক্ত করতে পারে। কিন্তু চোখের দৃষ্টি থাকে একমুখী। সেকারণেই মস্তিষ্কের বুঝতে অসুবিধা হয় দেহটি সচল আছে না স্থবির। আর তখনই মস্তিষ্কের উপরে বাড়তি চাপ পড়ার কারণে বিভিন্ন শারীরিক সমস্যা দেখা দেয়।

প্রতিকার

১. ভ্রমণের আগে অতিরিক্ত তেল বা মশলাযুক্ত কোনো কিছু খাবেন না।

২. চেষ্টা করবেন কোনো শক্ত খাবার না খেতে। তরল খাবার খেলে সমস্যা কম হয়।

৩. মোশন সিকনেসের সমস্যা যাদের আছে, তারা চেষ্টা করবেন বাস, গাড়ি বা লঞ্চে উঠে ঘুমিয়ে পড়তে।

৪. ভ্রমণের পুরোটা সময় চুইংগাম চিবাতে থাকলে এই সমস্যাটা হবে না। কারণ তখন মুখ সচল থাকায় মস্তিষ্কও মনে করবে আপনার দেহ গতিশীল আছে।

৫. এই সমস্যা যাদের আছে, তারা ভুলেও ভ্রমণরত অবস্থায় বই পড়া বা স্মার্টফোন ঘাঁটার চেষ্টা করবেন না। এটি মস্তিষ্কের উপর অতিরিক্ত চাপ ফেলে, যার কারণে সমস্যাটা আরও প্রকট হবে।

৬. বাস, ট্রেন বা লঞ্চে শুকানো আদার গুড়া পাওয়া যায়। এটিও সারাক্ষণ চিবাতে পারেন বমি বমি ভাব এড়ানোর জন্য।

৭. সঙ্গে জিরাপানি ও লেবুপানি রাখতে পারেন। বমি বমি ভাব হলেই এগুলো পান করে নিলে অনেকটা স্বস্তি পাওয়া যায়।

৮. ভ্রমণপথে এই ধরণের বমি বমি ভাব রোধ করার কিছু ওষুধ পাওয়া যায়। চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করে এই ওষুধ খেয়ে নেয়া যেতে পারে ভ্রমণের আগে।  

দিনবদলবিডি/আরএজে

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়