‘বাচ্চাটা চিড়া-মুড়ি খেতে পারছে না, একটু দুধ যদি হতো’

দিনবদলবিডি ডেস্ক || দিনবদলবিডি.কম

প্রকাশিত: সকাল ১০:১০, মঙ্গলবার, ২১ জুন, ২০২২, ১৮ আষাঢ়
‘বাচ্চাটা চিড়া-মুড়ি খেতে পারছে না, একটু দুধ যদি হতো’

ত্রাণ নিচ্ছেন আশ্রয়কেন্দ্রে থাকা লোকজন

‘বাচ্চাটার বয়স তিন বছর। সে চিড়া-মুড়ি খেয়ে আর থাকতে পারছে না। একটু দুধ যদি হতো।’ বন্যায় ঘর-বাড়ি তলিয়ে যাওয়ায় আশ্রয়কেন্দ্রে আশ্রয় নেওয়া এক বাবার আকুতি এটা।

সিলেটে ভয়াবহ বন্যায় ৯০ শতাংশ মানুষের ঘর-বাড়িতে পানি উঠেছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। বন্যার কারণে এই বাবার মতো অধিকাংশ মানুষ নানা সংকটে রয়েছেন।

একটি বেসরকারি টেলিভিশনের সাংবাদিক মনির মিল্লাত তার ফেসবুক স্ট্যাটাস ওই বাবার আকুতির কথা জানিয়েছেন।

সেখানে তিনি লিখেছেন, চোখের সামনে শুধু মানুষের কষ্ট দেখি। কিছুই করতে পারি না। ক্যামেরা ইউনিট নিয়ে সিলেটের আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে ঢুকলেই বানভাসি মানুষ ভাবে তাদের জন্য খাবার-দাবার কিছু একটা বোধহয় নিয়ে আসছি।

সবাই খাবার চায়, পানি চায়। সকালে আশ্রয়কেন্দ্রে এক বাবা বললেন, তার তিন বছরের বাচ্চাটা চিড়া মুড়ি খেয়ে আর থাকতে পারছে না। একটু দুধ যদি হতো। ব্যবস্থা করতে পারিনি।

আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে খাদ্য ও বিশুদ্ধ পানির তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে। অনেক জায়গায় নেই বিদ্যুৎও। এ অবস্থায় পরিবার নিয়ে বিপাকে পড়েছেন আশ্রয়কেন্দ্রে অবস্থান নেওয়া বন্যাদুর্গতরা।

এদিকে জেলা প্রশাসক জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী এবং কোস্ট গার্ড ছাড়াও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা দুর্গম এলাকায় ত্রাণ পৌঁছে দিচ্ছে।

তিনি জানান, ১৫ তারিখ থেকে এখনো পর্যন্ত এক কোটি ৩০ লাখ টাকা, পাঁচ হাজার বস্তা শুকনো খাবার দেওয়া হয়েছে। এখনও ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। 

দিনবদলবিডি

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়