মঙ্গলবার

২৬ অক্টোবর ২০২১


১১ কার্তিক ১৪২৮,

১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দিন বদল বাংলাদেশ

ছাত্রীকে বিয়ে করতে গিয়ে ধরা ভুয়া এএসপি

ময়মনসিংহ সংবাদদাতা || দিনবদলবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:২৬, ১৩ অক্টোবর ২০২১  
ছাত্রীকে বিয়ে করতে গিয়ে ধরা ভুয়া এএসপি

সংগৃহীত ছবি

ময়মনসিংহ জেলার ফুলপুর উপজেলায় ৪০তম বিসিএস ক্যাডারে উত্তীর্ণ হয়ে এএসপি হয়েছেন পরিচয় দিয়ে বিয়ে করতে গিয়ে পুলিশের হাতে আটক হয়েছেন সোলাইমান কবীর (৩৫) নামের এক যুবক।

সোমবার উপজেলার রুপসী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ জানিয়েছে, এএসপি পরিচয় দেওয়া যুবক সোলাইমান কবির একজন প্রতারক।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত সোমবার রাতে ফুলপুরের রুপসী গ্রামে অনার্সপড়ুয়া এক ছাত্রীকে বিয়ে করতে যায় সোলাইমান কবীর। এসময় তার তার কথাবার্তায় সন্দেহ হলে মেয়েটির পরিবার ফুলপুর থানা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এসে তার সঙ্গে কথা বলে নিশ্চিত হয় তিনি ভুয়া পরিচয় দিয়েছেন।

ওই রাতেই পুলিশ তাকে আটক করে মঙ্গলবার আদালতে পাঠান। সোলাইমান কবীরের বাড়ি শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতি উপজেলার কুচনিপাড়া গ্রামে। তিনি সেখানকার শাহ জাহানের ছেলে বলে জানা গেছে।

পুলিশ ও ভুক্তভোগী পরিবার সূত্রে জানা যায়, শেরপুর সরকারি কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞানের অনার্স ফাইনাল বর্ষের ছাত্রীর সঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পরিচয় হয় কবীরের। তাকে সে পরিচয় দেয় ৪০তম বিসিএস ক্যাডার পুলিশের এএসপি। অনার্সপড়ুয়া মেয়েটিকে বিয়ের জন্য প্রস্তাব দিলে মেয়েটি তার অভিভাবককে এ ঘটনা জানান। প্রতারক সোলাইমান গত সোমবার রাতে এসে মেয়েটির বাড়িতে উপস্থিত হন। সোলাইমানের কথাবার্তায় সন্দেহ হলে পরিবারের লোকজন ফুলপুর থানা পুলিশকে খবর দিলে ফুলপুর থানার (ওসি) আব্দুল্লাহ আল মামুন মোবাইলে কথা বলেন। ওসি তার কথায় অসঙ্গতি পেলে নিশ্চিত হন যে সে ভুয়া পরিচয় দিচ্ছেন। তাকে অপেক্ষার অনুরোধ করে ওসি বলেন, আমি আপনার সাথে দেখা করতে আসছি। পরে সোলাইমানকে আটক করা হয়। আটককৃত কবিরের কাছ থেকে পুলিশের সরকারি বুট, মোবাইল সেট, মানিব্যাগ মেলে। গতকাল তার বিরুদ্ধে মামলা হওয়ার পর  আদালতে পাঠানো হয়।

জানা যায়, সোলাইমান পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন যে, তিনি ভুয়া এএসপি পরিচয় দিয়ে ৩০-৩৫ জন মেয়ের সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক করেছেন। এ অপকর্মের জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে বেছে নিয়েছেন তিনি। জানা যায়, তার ফাঁদে পড়ছেন বেশিরভাগ কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়পড়ুয়া মেয়েরা।

ফুলপুর থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, যেসব মেয়েরা তার প্রতারণার ফাঁদে পড়েছেন তাদেরকে খুঁজে বের করে অভিভাবকদের সতর্ক করা হবে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে  স্কুল, কলেজ ও  বিশ্ববিদ্যালয়পড়ুয়া ছেলে-মেয়েরা যাতে এ ধরনের প্রতারণার ফাঁদে না পড়ে তিনি সব অভিভাবকদের সতর্ক করেন।

দিনবদলবিডি/জিএ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়