বুধবার

২৬ জানুয়ারি ২০২২


১৩ মাঘ ১৪২৮,

২০ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

দিন বদল বাংলাদেশ

নৌকাকে রোধ করার ক্ষমতা কারো নেই: আইভী

নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতা || দিনবদলবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:১৭, ১৪ জানুয়ারি ২০২২   আপডেট: ২১:১৯, ১৪ জানুয়ারি ২০২২
নৌকাকে রোধ করার ক্ষমতা কারো নেই: আইভী

জনসভায় বক্তব্য রাখছেন সেলিনা হায়াৎ আইভী

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, নৌকাকে রোধ করার ক্ষমতা কারো নেই। নারায়ণগঞ্জের আনাচে-কানাচে উন্নয়নের নৌকা। আপনারা নিশ্চয়ই এই ধারবাহিকতা বজায় রাখবেন।

তিনি আরো বলেন, শেখ হাসিনা যখন বিরোধী দলের নেত্রী ছিলেন। সেই দুঃসময়ে নারায়ণগঞ্জে কেউ ছিল না। পালিয়েছিল অনেকে। সেই সময় নেত্রী আমাকে ২০০৩ সালে সমর্থন দিয়েছিলেন। নেত্রীর দোয়ায় আমি সফল হয়েছি। আমি আপনাদের কল্যাণে কাজ করেছি। 

আজ শুক্রবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ শহরের ২নং রেলগেট আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের সামনে অস্থায়ী ট্রাক মঞ্চে জনসভায় এসব কথা বলেন আইভী।

সভায় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবীর নানকসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

তিনি আরো বলেন, ২০১১ সালে নির্বাচন করেছি। লক্ষাধিক ভোটে পরাজিত করেছি। আপনারা সবাই জানেন। ২০১৬ সালে ৭৪ হাজার ভোটে পরাজিত করেছিলাম ধানের শীষকে। আবারও আপনাদের দরবারে এসেছি। শান্তির বার্তা নিয়ে অন্যায়ের বিরুদ্ধে, অত্যাচারের বিরুদ্ধে। খুনির বিরুদ্ধে ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে। অবিচারের বিরুদ্ধে। নিশ্চয় এই নৌকা আইভীর নৌকা। এই নৌকা বিজয়ের নৌকা। এই নৌকা বঙ্গবন্ধুর নৌকা। সর্বোপরি মাওলা ওলির নৌকা।

আইভী বলেন, দুর্নীতিমুক্ত ও সন্ত্রাসমুক্ত নারায়ণগঞ্জ গড়ার জন্য আমাকে ভোট দিন। আমি ২৭টি ওয়ার্ড ঘুরে দেখেছি। মাটি ও মানুষ বলছে নৌকা। আমি এই নৌকার জন্য সংসার, সন্তানকে সময় দিতে পারি না। আপনাদের সেবার জন্য আমার এই নিজের জীবন বাজি রেখে কাজ করেছি। নিশ্চয় আপনারা আমাকে দ্বিমুখ করবেন না।

তিনি আরও বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নারায়ণগঞ্জের মানুষের প্রাণের স্পন্দন বুঝতে পেরেছে। আপনাদের বিশ্বাসকে প্রতিষ্ঠা করতে আমাকে নৌকার মনোনয়ন দিয়েছেন বলে মন থেকে কৃতজ্ঞা জানাচ্ছি। সঙ্গে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ এসে আমার পাশে দাঁড়িয়ে একাত্মতা জানিয়ে আপনাদের ম্যাসেজ দিয়েছে-নারায়ণগঞ্জ মানেই শেখ হাসিনার উন্নয়ন, নারায়ণগঞ্জ মানেই নৌকার উন্নয়ন। নৌকা মানেই সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে, চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে। কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ মানুষের ঘরে ঘরে গিয়ে বুঝতে পেরেছেন নারায়ণগঞ্জের মানুষ কি বলতে চায়। কি তাদের চাহিদা।

কেন্দ্রীয় নেতাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে আইভী বলেন, এই নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের ঘাঁটি। নৌকার ঘাঁটি। এই নারায়ণগঞ্জ মানুষের কল্যাণে কাজ করে। এই নারায়ণঞ্জে আওয়ামী লীগের জন্ম পাইকপাড়া মিউচুয়্যাল ক্লাবে। কিন্তু কালভদ্রে এই শহরকে কলংকিত করা হয়েছে। দূষিত করা হয়েছে। বিষাক্ত করা হয়েছে। সেই দূষিত ও কলংককে বিষাক্ত মুক্ত করতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পয়গাম হলো-নৌকা আইভীকে দেওয়া।

আইভী বলেন, আমি আইভী প্রধানমন্ত্রীর ছোট্ট একটা কর্মী। আমি চেষ্টা করেছি শহরের মাটি-মানুষের কল্যাণে কাজ করার জন্য। আমি বাবার কাছে থেকে শিখেছি কিভাবে মানুষকে ভালোবাসতে হয়। কিভাবে মানুষের কাছে যেতে হয়। আমার বাবা আমাকে শিক্ষা দিয়েছে মানুষের মাঝে খোদা বিরাজ করেন। তুমি মানুষের সেবা কর। তুমি আল্লাহকে পেয়ে যাবে। আমি আমার বাবার কথা শুনে আপনাদের কাছে এসেছি আপনাদের ডাকে সাড়া দিয়েছি। দীর্ঘ ১৮টি বছর আপনাদের জন্য কাজ করেছি।

দিনবদলবিডি/এআর

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়