শনিবার

২৮ মে ২০২২


১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯,

২৬ শাওয়াল ১৪৪৩

দিন বদল বাংলাদেশ

লিভারে ফ্যাট জমলে দেখা দিতে পারে ডায়েবেটিস

লাইফস্টাইল ডেস্ক || দিনবদলবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:০৯, ২০ জানুয়ারি ২০২২   আপডেট: ১৭:১৯, ২০ জানুয়ারি ২০২২
লিভারে ফ্যাট জমলে দেখা দিতে পারে ডায়েবেটিস

ফ্যাটি লিভার রোগটি রক্তে সুগারের মাত্রা বাড়াতে পারে

শরীরের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি অঙ্গ হলো লিভার। অঙ্গটি বিপাক, পরিপাক থেকে শুরু করে শরীরের ক্ষতিকর পদার্থ দূর করার মতো কাজ করে।

এছাড়া লিভার শরীরে ফ্যাট জমা রাখতেও সাহায্য করে। নির্দিষ্ট পরিমাণে সামান্য পরিমানের ফ্যাট কোনো সমস্যা তৈরি করে না করলেও যদি লিভারের ভেতর পুরু আস্তরণ তৈরি করে, তবে দেখা দিতে পারে মারাত্মক সমস্যা। প্রয়োজনের বেশি এই ফ্যাট জমার ঘটনাকে বলে ফ্যাটি লিভার ডিজিজ। সম্প্রতি এক গবেষণায় জানা যায়, এই রোগের কারণে দেখা দিতে পারে ডায়েবেটিসের আশঙ্কা।

ফ্যাটি লিভার এবং ডায়াবেটিস

লন্ডনের ব্রুনেল বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গবেষণা বলছে, ফ্যাটি লিভার রোগটি রক্তে সুগারের মাত্রা বাড়াতে পারে। প্রায় ৩৩ হাজার মানুষের ওপর করা হয় এই গবেষণা। এক্ষেত্রে মানুষগুলোর এমআরআই স্ক্যান করে লিভার এবং প্যাংক্রিয়াসের আকার দেখা হয়। এসময় যেই মানুষগুলোর জিনগতভাবে লিভারে বেশি ফ্যাট থাকে তাদের টাইপ ২ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বেশি বলেই জানাচ্ছেন গবেষকরা। এক্ষেত্রে লিভারে ফ্যাটের পরিমাণ ৫ শতাংশ বাড়লে ডায়াবিটিসের ঝুঁকি বাড়ে ২৭ শতাংশ। এসময় ব্যবহার করা হয় মেন্ডলিন প্রক্রিয়া। এই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে জিনের ক্রিয়ার পরিমাপ করা সম্ভব হয়।

এই গবেষণার বিজ্ঞানীরা বলেন, এক্ষেত্রে নন অ্যালকোহোলিক ফ্যাটি লিভারে আক্রান্ত মানুষের সমস্যা একটু বেশি দেখা যায়। ওজন কমানো এবং ডায়াবিটিসের পরীক্ষাই এই মানুষগুলোকে সমস্যার হাত থেকে বাঁচাতে পারে।

ফ্যাটি লিভার ডিজিজ প্রতিহত করার উপায়

এই রোগটি থেকে ডায়াবেটিসের পাশাপাশি লিভার সিরোসিসের মতো ঘাতক রোগও হতে পারে। তাই সবাই এই অসুখ থেকে বাঁচার পথ জানা দরকার।

> এক্ষেত্রে প্রাথমিকভাবে খাওয়াদাওয়া ঠিক করতে হবে। তৈলাক্ত খাবারের বদলে বেশি বেশি সবুজ শাক, সবজি খেতে হবে। খেতে পারেন ফল। ফলে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এই সমস্যা দূর করতে পারে। এছাড়া কার্বোহাইড্রেট খাওয়ার ব্যাপারেও সংযত হতে হবে।

> কতটা ওজন কমাতে হবে তা বিএমআই দেখে ঠিক করতে হবে। এক্ষেত্রে ইন্টারনেটে রয়েছে বিএমআই ক্যালকুলেটর। সেই ক্যালকুলেটরে নিজের ওজন এবং উচ্চতা লিখুন। দেখবেন বেরিয়ে এসেছে বিএমআই। সেই অনুযায়ী গ্রহণ করুন পদক্ষেপ।

> দিনে ন্যূনতম ৩০ মিনিট ব্যায়াম হলো বাধ্যতামূলক। এর থেকে বেশি করলে ক্ষতি নেই। তবে কম করা যাবে না। এক্ষেত্রে ঘাম ঝরিয়ে ব্যায়াম করতে হবে।

দিনবদলবিডি/জিএ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়