মঙ্গলবার

২৬ অক্টোবর ২০২১


১১ কার্তিক ১৪২৮,

১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দিন বদল বাংলাদেশ

অ্যামব্রোসের ওপর ক্ষোভ ছাড়লেন গেইল

স্পোর্টস ডেস্ক || দিনবদলবিডি.কম

প্রকাশিত: ২৩:৪৩, ১৩ অক্টোবর ২০২১  
অ্যামব্রোসের ওপর ক্ষোভ ছাড়লেন গেইল

ক্রিস গেইল ও কার্টলি অ্যামব্রোস- ছবি: সংগৃহীত

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটে শুরু হয়েছে কথার লড়াই। সাবেক পেসার কার্টলি অ্যামব্রোসের একটি মন্তব্যের জের ধরে খেপেছেন ক্রিস গেইল। আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দলের একাদশে গেইল অটোমেটিক চয়েজ নয়, অ্যামব্রোসের এমন মন্তব্যে উইন্ডিজ ওপেনারের কড়া ভাষায় জবাব, সাবেক খেলোয়াড়ের জন্য তার আর সম্মান অবশিষ্ট নেই এবং তার সঙ্গে সব সম্পর্ক শেষ।

মঙ্গলবার সেন্ট কিটসের একটি রেডিও স্টেশনে দ্য আইল্যান্ড টি মর্নিং শো’তে গেইল বলেন, আমি কার্টলি অ্যামব্রোস সম্পর্কে বলছি। আলাদা করে কার্টলি অ্যামব্রোসকে বলছি, যিনি আমাদের। ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে আসার পর আমি তাকে অনেক সম্মান করতাম। যখন সবেমাত্র দলে যোগ দিয়েছিলাম, তখন এই লোকটার দিকে তাকিয়ে ছিলাম। কিন্তু এখন আমি আমার অন্তর থেকে কথা বলছি। গণমাধ্যমে তিনি যে নেতিবাচক বিষয়গুলো বলছেন, আমি জানি না তিনি মনোযোগ পাওয়ার জন্য এসব বলছেন কি না। কিন্তু তিনি মনোযোগ পাচ্ছেন। তাই আমি তাকে মনোযোগ ফিরিয়ে দিচ্ছি যেটা তার প্রয়োজন।

গেইল বলেন, আমি আপনাকে ব্যক্তিগতভাবে বলছি, তাকে জানিয়ে দিন যে কার্টলি অ্যামব্রোসের জন্য আর এতটুকু শ্রদ্ধা নেই দ্য ইউনিভার্স বস ক্রিস গেইলের।’ ২০১২ ও ২০১৬ সালের বিশ্বকাপ জয়ী দলে ছিলেন এই বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান। তার পরামর্শ, ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক খেলোয়াড়রা যদি নেতিবাচক মন্তব্য করেন এবং দলকে সমর্থন না দেন, তাহলে ‘ইউনিভার্স বস সবার মুখের ওপর অসম্মানজনক আচরণ করবেন।’

৪২ বছর বয়সী গেইল বলেন, কার্টলি অ্যামব্রোসের সঙ্গে আমার সব শেষ। আমার আর কোনো সম্মান নেই, যেকোনো সময় তার সঙ্গে দেখা হলে আমি বলব, ‘নেতিবাচক হওয়া বন্ধ করুন, বিশ্বকাপ সামনে রেখে দলকে সমর্থন দিন। বিশ্বকাপের এই দল বাছাই করা হয়েছে এবং সাবেক খেলোয়াড়দের উচিত আমাদের সমর্থন করা। সেটাই আমাদের প্রয়োজন, নেতিবাচক কোনো কথা নয়। অন্য দেশে তাদের সাবেক খেলোয়াড়রা নিজেদের দলগুলোকে সমর্থন দেয়, আমরা কেন এমন একটি বড় টুর্নামেন্টে নিজেদের দলকে সমর্থন দিতে পারি না?

এই বছর গেইল ১৬টি টি-টোয়েন্টি খেলে ১৭.৪৬ গড়ে ২২৭ রান করেন। তার নামের পাশে মাত্র একটি ফিফটি। বায়ো-বাবল ক্লান্তির কথা বলে সম্প্রতি আইপিএলের সংযুক্ত আরব আমিরাত পর্বে মাত্র দুটি ম্যাচ খেলে সরে দাঁড়ান পাঞ্জাব কিংসের ওপেনার, তার রান ছিল ১ ও ১৪। ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস প্যাট্রিয়টসের ৯ ম্যাচে ১৮.৩৩ গড়ে করেন ১৬৫ রান। বোঝাই যাচ্ছে, ফর্মে নেই উইন্ডিজ তারকা।

তার বাজে ফর্মের কথা উল্লেখ করে গত সপ্তাহে অ্যামব্রোস বলেন, গেইল এখনো বিধ্বংসী হয়ে উঠতে পারেন। কিন্তু গত দেড় বছর ধরে যা করেছে সে, তাতে আমি খুব একটা প্রলুব্ধ হতে পারছি না যে সে বিশ্বকাপে আলো ছড়াবে। আমার মতে, একাদশের জন্য সে একদম অটোমেটিক চয়েজ নয়। গত ১৮ মাসে তার পারফরম্যান্স দেখুন, শুধু ওয়েস্ট ইন্ডিজ নয় অন্য টি-টোয়েন্টি ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গেও সে ভুগেছে। যে অল্প কয়েকটি হোম সিরিজ আমরা খেলেছি, তাতে উল্লেখ করার মতো কোনো স্কোর তার ছিল না।

দিনবদলবিডি/কে

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়