বুধবার

২৬ জানুয়ারি ২০২২


১৩ মাঘ ১৪২৮,

২০ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

দিন বদল বাংলাদেশ

আলোকস্বল্পতার কারণে খেলা বন্ধ

স্পোর্টস ডেস্ক || দিনবদলবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:৩১, ৪ ডিসেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৫:৪২, ৪ ডিসেম্বর ২০২১
আলোকস্বল্পতার কারণে খেলা বন্ধ

আলোকস্বল্পতার কারণে আবারো বন্ধ হয়ে গেছে ঢাকা টেস্টের খেলা। সকাল থেকেই আকাশ মেঘলা ছিল। আলোক স্বল্পতার কারণে সকাল সাড়ে ১০টা থেকেই খেলা হচ্ছিল ফ্লাডলাইটের আলোয়। মধ্যাহ্ন বিরতির পর বৃষ্টির কারণে কিছুক্ষণ খেলা বন্ধ থাকে। 

এরপর নির্দিষ্ট সময়েই চা বিরতি দেওয়া হয়। চা বিরতির পর নির্দিষ্ট সময়ে খেলা শুরু হয়নি আলোক স্বল্পতার জন্য। ক্রিকেটাররা মাঠে প্রবেশ করে আবার ফিরে যান। খেলা শুরু হওয়া নিয়ে এখনো অনিশ্চয়তা আছে।

শনিবার মিরপুর শেরে বাংলায় টস হেরে ফিল্ডিংয়ে নামা বাংলাদেশের হয়ে নতুন বলে শুরু করেন এবাদত হোসেন। পঞ্চম বলটি থার্ডম্যান দিয়ে সীমানাছাড়া করে রানের খাতা খোলেন আবিদ আলী। অন্যাপ্রান্ত থেকে বোলিং করা খালেদ আহমেদ মেডেন ওভার দিয়ে শুরু করেন। সকাল থেকেই মেঘলা আকাশ। বেশ ঠাণ্ডাও আছে। সূর্য ওঠার কোনো লক্ষণ নেই। ঢাকা টেস্ট শুরুর ৩৫ মিনিটের মাঝেই আকাশ আরো মেঘলা হয়ে যায়। আলো কমে আসে। তাই সকালবেলাতেই মিরপুর শেরে বাংলায় জ্বলে ওঠে ফ্লাডলাইট। 

প্রথম সাফল্যের জন্য টাইগারদের অপেক্ষা করতে হয়েছে সোয়া ঘণ্টার মতো। ইনিংসের ১৯তম ওভারে আব্দুল্লাহ শফিককে বোল্ড করে দেন তাইজুল ইসলাম। ৫০ বলে ২ চার ১ ছক্কায় শফিকের সংগ্রহ ২৫ রান। এর সঙ্গেই ভাঙে পাকিস্তানের ৫৯ রানের ওপেনিং জুটি। উইকেটে আসেন আজহার আলী। তাইজুলের ফিরতি ওভারে আজহারের বিরুদ্ধে কট বিহাইন্ডের আবেদন আম্পায়ার নাকচ করলে ফের রিভিউ নেয় বাংলাদেশ। আল্ট্রা এজে সামান্য স্পাইক দেখা গেলেও অনেকক্ষণ পর আম্পায়ার কল হিসেবে রিভিউ খারিজ করেন তৃতীয় আম্পায়ার।

তাইজুলের হাত ধরে আসে দ্বিতীয় সাফল্য। ২৫তম ওভারে আবিদ আলীকে বোল্ড করে দিয়েছেন এই স্পিনার। ৮১ বলে ৬ চারে ৩৯ রান করে ফিরেন আবিদ। ৭০ রানে পতন হয় দ্বিতীয় উইকেটের। আজহারের সঙ্গে যোগ দেন অধিনায়ক বাবর আজম। তাইজুলকে চার মেরে বাবর রানের খাতা খোলেন। এর মাধ্যমে ৩৮ বল পর রান পেল পাকিস্তান! মধ্যাহ্ন বিরতির আগে অতিথিদের সংগ্রহ ২ উইকেটে ৭৮ রান। বিরতির পর মেহেদি মিরাজের করা ৩৬তম ওভারের শেষ বলে বাউন্ডারি মেরে পাকিস্তানের স্কোর একশ পার করেন অধিনায়ক বাবর আজম।

মধ্যাহ্ন বিরতির পর ঘণ্টাখানেক খেলা চলে। তারপর হানা দেয় বৃষ্টি। খেলা বন্ধ করে পিচ ঢেকে ফেলা হয়। অবশ্য বৃষ্টি বেশি না হওয়ায় ১০ মিনিট পরই সরানো হয় পিচ কাভার। শুরু হয় মাঠ শুকানোর কাজ। ১:৫৫ মিনিটে খেলা শুরুর একটু পরেই সাকিব আল হাসানের বলে বাবর আজমের ক্যাচ সীমানার কাছাকাছি ফেলে দেন খালেদ। বাবর তখন ৩৯ রানে ব্যাট করছেন। সেই মিস হওয়া ক্যাচটি চার হয়ে যায়। জীবন পাওয়ার পরের বলেও সাকিবকে চার মারেন বাবর। ৭৫ বলে পূরণ করেন ফিফটি।

বাংলাদেশ একাদশ: মুমিনুল হক (অধিনায়ক), সাদমান ইসলাম, মাহমুদুল হাসান জয়, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুশফিকুর রহিম, লিটন কুমার দাস, সাকিব আল হাসান, মেহেদি হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, খালেদ হোসেন, এবাদত হোসেন।

পাকিস্তান একাদশ: আবিদ আলী, আব্দুল্লাহ শফিক, আজহার আলী, বাবর আজম (অধিনায়ক), ফাওয়াদ আলম, মোহাম্মদ রিজওয়ান, ফাহিম আশরাফ, নুমান আলী, হাসান আলী, সাজিদ খান, শাহিন শাহ আফ্রিদি।

দিনবদলবিডি/এমআর

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়