মঙ্গলবার

১৯ জানুয়ারি ২০২১


৫ মাঘ ১৪২৭,

০৫ জমাদিউস সানি ১৪৪২

দিন বদল বাংলাদেশ

কনের প্রস্তাবে এক টাকার দেনমোহরে বিয়ে

ফরিদপুর সংবাদদাতা || দিনবদলবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:১০, ৮ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১৬:৩৪, ১৮ জানুয়ারি ২০২১
কনের প্রস্তাবে এক টাকার দেনমোহরে বিয়ে

বিয়ের আসরে আশিকুজ্জামান ও বিপাশা আজিজ

বিয়ের একটি সাধারণ দৃশ্য হচ্ছে দেনমোহর নিয়ে দরকষাকষি। কিন্তু এবার ফরিদপুরে ঘটলো এক ব্যতিক্রম ঘটনা।  কনের দাবির মুখে এবং কনের পরিবারের প্রস্তাবে এক টাকার দেনমোহরানায় একটি কাবিন সম্পন্ন হয়েছে। 

আজ (শুক্রবার) দুপুরে শহরের ঝিলটুলী মহল্লার মেজবান পার্টি সেন্টারে এ বিয়ের কাবিন এবং বিয়ে পরবর্তী ভোজের আয়োজন হয়।

কনে বিপাশা আজিজ (২৫) মাদারীপুরের সাহেবের চর মহল্লার বাসিন্দা আজিজুল হক ও নাসরিন সুলতানার একমাত্র মেয়ে। বিপাশা ঢাকায় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মকর্তা পদে কর্মরত রয়েছেন। তবে বর্তমানে এ দম্পতি ফরিদপুর শহরের আলীপুর মহল্লায় বসবাস করবেন।

বর আশীকুজ্জামান চৌধুরী (৩০)। তিনি ফরিদপুর শহরের কুঠিবাড়ি কমলাপুর মহল্লার বাসিন্দা। আশীকুজ্জামান ব্যবসা করেন।

এ বিয়ের অনুষ্ঠানে অংশ নেয়া প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, কনে আগে থেকেই ঠিক করে রেখেছিলেন, তিনি যেহেতু আর্থিকভাবে স্বচ্ছল এ কারণে তার বিয়ের কাবিনে দেনমহরানা ধরা হবে এক টাকা। কিন্তু ওই বিয়ের অনুষ্ঠানের কাজী দেনমোহরানা দুই লাখ টাকা লেখেন। এ ঘটনা জানার পর মেয়ের মা ও মেয়ের সিদ্ধান্ত জানিয়ে এক টাকা দেনমহরানা লেখান।

ফরিদপুর নাগরিক কমিটির সভাপতি আওলাদ হোসেন বলেন, সাধারণত দেখা যায় কনেপক্ষই দরকষাকষি করে কাবিনের সময় দেনমোহরানা বাড়িয়ে থাকেন। সেক্ষেত্রে এটি একটি ব্যতিক্রম এবং পাশাপাশি আর্থিকভাবে স্বচ্ছল এক নারীর আত্মমর্যাদার রক্ষার প্রতীকও বটে।

তবে এক টাকার কাবিনে দ্বিমত পোষণ করেছেন নারী নেত্রী ফরিদপুর ব্লাস্টের সমন্বয়কারী শিপ্রা গোস্বামী। তিনি বলেন, মুসলিম বিয়ে একটি চুক্তি। মোহরানা নারীর হক। স্বামীর আর্থিক সঙ্গতি ও নারীর সামাজিক অবস্থানের ভিত্তিতে দেনমোহর নির্ধারিত হয়ে থাকে।

তিনি বলেন, মোহরানার ব্যাপারে আবেগের কোনো স্থান নেই। আবেগের বশে মোহরানায় এক টাকা লেখা যেতে পারে কিন্তু এটি মোটেও বাস্তবসম্মত নয়।

দিনবদলবিডি/এইচ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়