এতিমখানায় কোরবানির মাংস পাঠাবেন খালেদা জিয়া

দিন বদল বাংলাদেশ ডেস্ক || দিন বদল বাংলাদেশ

প্রকাশিতঃ দুপুর ০২:৫৪, শনিবার, ৯ জুলাই, ২০২২, ২৫ আষাঢ় ১৪২৯

কখনো হাসপাতাল কখনো বাসা— সাম্প্রতিক সময় গুলো এভাবে পার করছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

সর্বশেষ বেশ কিছুদিন আগে হাসপাতাল থেকে বাসায় ফিরেছেন। তবে শারীরিকভাবে এখনও পুরোপুরি সুস্থ নন তিনি।

শারীরিক অসুস্থতার সঙ্গে সঙ্গে গত কয়েকটি বছর করোনা মহামারি, জেলজীবন, সন্তান ও স্বজনদের সঙ্গে পারিবারিক দূরত্ব তথা বিচ্ছিন্নতা সব মিলিয়ে মানসিকভাবে তাকে  বিপর্যস্ত করে রেখেছে।

তবে এবার ঈদুল আযহার লগ্নে মানসিকভাবে বেশ প্রফুল্ল আছেন তিনি। কারণ, অনেক বছর পর সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী ঈদ উদযাপন করবেন ছোট ছেলে প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর সন্তানদের সঙ্গে। নাতনি জাফিয়া ও জাহিয়া এখন তার সঙ্গে অবস্থান করছে।

অন্যদিকে কুরবানির প্রস্তুতিএ নিয়েছেন খালেদা জিয়া। এর উদ্দেশ্যে একটি গরু ও দুটি খাসি কেনা হয়েছে।

তার অফিস সূত্রে জানা গেছে, ঈদের দিন পশুগুলো জবাইয়ের পর ঢাকার কয়েকটি এতিমখানায় কিছু মাংস পাঠিয়ে দেওয়া হবে। মাংসের একটি অংশ বিএনপি অফিসের স্টাফরা নেবেন।

আর কোরবানির দেওয়া খাসির মাংসের কিছু অংশ খালেদার গুলশানের বাসভবন ফিরোজায় বাবুর্চিরা রান্না করবেন। সেই খাবারের অংশবিশেষ বিএনপি চেয়ারপারসন খেতে পারেন।

চেয়ারপারসনের একান্ত সচিব এ বি এম আব্দুস সাত্তার গণমাধ্যমকে জানান, ম্যাডাম এবার একটি গরু ও দুটি খাসি কুরবানি দিচ্ছেন। কোরবানির পশু জবাই হওয়ার পর মাংসের কিছু অংশ তার বাসভবনে স্টাফদের জন্য রেখে বাকিটা কয়েকটি এতিমখানা ও গরিবদের মধ্যে বিতরণ করা হবে।

আব্দুস সাত্তার আরও বলেন, শারীরিক অসুস্থতার জন্য ম্যাডাম মাংস খেতে পারেন না। তিনি খুব সাধারণ খাবার খান। এবার তো এমনিতেই অসুস্থ। চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী উনার খাবার রান্না হয়।

এতিমদের অর্থ আত্মসাৎ সংক্রান্ত মামলায় দন্ড ভোগরত খালেদা জিয়া সরকারের নির্বাহী আদেশে মুক্তি পান। এরপর প্রতি ঈদে সন্ধ্যায় খালেদা জিয়ার সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করতে যান দলের স্থায়ী কমিটির সদস্যরা। জানা গেছে, এবারের ঈদেও দলীয় নেতারা দেখা করতে যাবেন তার সঙ্গে।

দিনবদলবিডি/এমআর

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়