৯৪ বছর পর দেখা হলো দুই বোনের

দিন বদল বাংলাদেশ ডেস্ক || দিন বদল বাংলাদেশ

প্রকাশিতঃ বিকাল ০৩:৫৭, শুক্রবার, ১৫ জুলাই, ২০২২, ৩১ আষাঢ় ১৪২৯
৯৪ বছর পর দুই বোন একে অপরের দেখা পেলেন।

৯৪ বছর পর দুই বোন একে অপরের দেখা পেলেন।

ইতালির দখলদারিত্বের সময় আলাদা হয়ে যাওয়া দুই লিবীয় বোনের পুনর্মিলন ঘটেছে ৯৪ বছর পর।

বুধবার তাদের দেখা হয়। এর মাধ্যমে দুই বোনের দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান ঘটল। খবর মিডল ইস্ট আইয়ের।

ওম আল-সাদ আবদুল্লাহ মুহাম্মদ আল-তাবুলি আল-ওয়ারফালি যিনি পরিবারের সঙ্গে ত্রিপোলির দক্ষিণপূর্বে বনী ওয়ালিদ শহরে বসবাস করেন। তিনি ১৯২০ এর দশকের শেষের দিকে ইতালির সেনাদের হাত থেকে বাঁচতে পালানোর সময় তার বোন ফাতিমাকে হারিয়ে ফেলেন।

লিবিয়া ১৯১১ সাল থেকে ১৯৪৩ পর্যন্ত ইতালির অধীনে ছিল। এ সময়ে ইতালির সেনারা লিবিয়ানদের বিরুদ্ধে গণহত্যা ও অবর্ণনীয় নৃশংসতা চালিয়েছে এবং প্রতিরোধ আন্দোলনকে দমন করতে গণ বন্দিশিবির তৈরি করেছিল মরুভূমিতে।

যাহোক, ওম আল-সাদ তার বোনকে খুঁজে পাওয়ার বিষয়ে কখনওই আশাহত হননি। তার দীর্ঘ চেষ্টা লিবিয়ার জালু শহরে তাদের পুনর্মিলনের মাধ্যমে সাফল্যের মুখ দেখল। লিবিয়ার ছোট এ শহরটিতে বাস করেন ফাতিমা।

দুই বোন আলাদা হয়ে যাওয়ার পর থেকেই কেউ এতদিন কারও দেখা পাননি। তাদের পুনর্মিলন আল-ওয়ারফালি এবং আল-মাজাব্রেহ গোত্রের জন্য উদযাপনের উপলক্ষ এনে দিয়েছে।

ওম আল-সাদ স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে বলেন, আমি জানতাম ফেজ্জানে আমার এক বোন হারিয়ে গেছে ও ইতালির সেনাদের হাত থেকে পালানোর সময় তার মৃত্যু হয়েছে। তবে বোন ফাতিমার সঙ্গে পুনরায় মিলিত হওয়ার একটি সুপ্ত বাসনা আমি লালন করেছি এতদিন।

ওম আল-সাদ যখন শুনলেন ফাতিমা আল-মাজাব্রেহ গোত্রে বিয়ে করেছেন। এর পর থেকেই তিনি বোনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা চালিয়ে আসছিলেন আল-মাজাব্রেহ গোত্রের বিভিন্ন জনের মাধ্যমে। অবশেষে তিনি সফল হলেন, বোনের দেখা পেলেন প্রায় ৯৪ বছর পর।

দিনবদলবিডি/এমআর

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়