হজ গাইডদের দ্রুত দেশে ফিরতে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের চিঠি

দিন বদল বাংলাদেশ ডেস্ক || দিন বদল বাংলাদেশ

প্রকাশিতঃ সকাল ১০:৪৩, মঙ্গলবার, ২৬ জুলাই, ২০২২, ১১ শ্রাবণ ১৪২৯
ছবি: প্রতীকী

ছবি: প্রতীকী

পবিত্র মক্কা-মদিনা নগরীতে পাঠানো হজ পথ-প্রদর্শকদের (গাইড) দ্রুত দেশে ফেরাতে চিঠি পাঠাচ্ছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।

হাজিদের সৌদিতে হজের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করতে এসব গাইড সহায়তা করেন। তাই মন্ত্রণালয় থেকে সরকারি ব্যবস্থাপনায় এসব প্রতিনিধি পাঠানো হয়। তবে, বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক মন্দার কারণে বর্তমান সরকার দেশে ব্যয় কমাতে কিছুটা কঠোর নীতিতে অটল। এ ব্যয় সংকোচন নীতির অংশ হিসেবে এ উদ্যোগ নিতে যাচ্ছে মন্ত্রণালয়। এতে সরকারের আর্থিক সাশ্রয় হবে এক লাখ ডলার, যা টাকার মূল্যে কোটি টাকার উপরে। চলতি সপ্তাহে এ চিঠি পাঠানো হতে পারে। খবর মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট সূত্রের।

জানতে চাইলে মন্ত্রণালয়ের হজ ব্যবস্থাপনা শাখার উর্ধতন একজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে এ প্রতিবেদককে বলেন, এ বছর হজের আনুষ্ঠানিকতা আগামী ৪ আগস্ট সম্পন্ন হবে। কিন্তু হাজীদের দিক-নিদের্শনা দিয়ে সহায়তা করতে যাওয়াদের ওই সময়ের মধ্যে দেশে ফেরার কথা। কিন্তু তারা আগামী ১৪ আগস্ট পর্যন্ত সেখানে অবস্থান করতে অভিপ্রায় ব্যক্ত করেছেন। এতে সরকারের কয়েক কোটি টাকা বাড়তি ব্যয় হবে। তাই সরকারের ব্যয় সংকোচন নীতি অনুসরণ করতে দ্রুত দেশে ফিরতে চিঠি পাঠানোর বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত হয়েছে। আশা করছি দু-একদিনের মধ্যে এ চিঠি পাঠানো হবে। চিঠিতে তাদের সেখানে অবস্থান করার অভিপ্রায় সময়ের নির্ধারিত আগে দেশে ফিরতে তাগিদ থাকবে। যদি ১০ আগস্টের আগেও দেশের ফেরেন এতে সরকারের সাশ্রয় হবে কোটি টাকার বেশি।

মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা জানান, এবার ১০ লাখ বিদেশিকে হজ পালনের সুযোগ দিয়েছে সৌদি আরব সরকার। করোনার প্রার্দুভাব থাকায় গত দুই বছর এ কার্যক্রম স্থগিত রেখেছিল সৌদি সরকার। সারা বিশ্বের মধ্যে থেকে এ বছর বাংলাদেশ থেকে ৫৭ হাজার ৮৫৬ জন হজে যান। এর মধ্যে চলতি বছর রাষ্ট্রীয় খরচে হজে যান ২৫৪ জন। সরকারঘোষিত প্যাকেজ-২ এ উল্লেখিত প্যাকেজ মূল্যের সুযোগ সুবিধা দিয়ে (প্নেন ভাড়া ছাড়া) তাদের হজে পাঠানো হয়। এসব হজযাত্রীর মধ্যে বঙ্গভবন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন, ঢাকাসহ সারা দেশের বিভিন্ন মসজিদের ইমামসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মুসল্লি রয়েছেন।

এদিকে, শ্রীলংকায় অর্থনীতিতে ধসের কারণে দেশটিতে এখন বিরাজ করছে নাজুক অবস্থা। ক্ষুদ্ধ জনরোষে দেশটির রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী দেশ ত্যাগী। পাকিস্তানের অবস্থাও ভালো নয়। বিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দা পরিস্থিতে বর্তমান সরকার রাষ্ট্রীয় ব্যয় কমানোর নীতি গ্রহণ করেছে। এর মধ্যে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিদের প্রশিক্ষণের নামে বিদেশ ভ্রমণ বাতিল, বিদ্যুৎ সাশ্রয় করে এর ঘাটতি পূরণ, প্রকল্পে ব্যয় কমানোসহ নানামুখী উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় ধর্ম মন্ত্রণালয় হাজীদের সহায়তা করতে সৌদি আরবে যাওয়া গাইড লাইন দ্রুত ফেরত আনতে নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে হজ এর সার্বিক কার্যক্রম সম্পন্ন হওয়া সাপেক্ষে। যথাসময়ে গাইডরা যাতে দেশে ফেরেন সেজন্য চিঠি পাঠানো হচ্ছে।

দিনবদলবিডি/আরএজে

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়